আত্মহত্যার পরিণাম জাহান্নাম

শাহ মাহমুদ হাসান


আত্মহত্যা হল আত্মবিশ্বাস ও ইমান পরিপন্থী একটি বিকৃত সিদ্ধান্ত। আল্লাহ তায়ালার আইন নিজের হাতে তুলে নিয়ে মানব জীবনে একটি কৃত্রিম সংকট ও বিপর্জয় সৃষ্টি করা। আত্মহত্মাকারী মনে করে সে নিজের হাতে নিজের জীবনের সকল কর্মকা-ের পরিসমাপ্তি ঘটাবে। মূলত আত্মহনন জীবনের পরিসমাপ্তি ঘটায় না। বরং সে নিজেকে ব্যর্থতা ও বিপর্যয়ের দিকে ঠেলে দেয়। এ ব্যর্থতা ও বিপর্যয় শুধু ইহ কালের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকবেনা বরং তা আসল জীবন পরকালকেও ধ্বংস করে দেয়। আত্মহত্যার মাধ্যমে একটি জীবনই শুধু নষ্ট হয় না, প্রতিটি আত্মহত্যার বিরূপ প্রভাব পড়ে পরিবারের ওপর, আত্মহত্যাকারীর বন্ধু-বান্ধবদের ওপর। একটি মাত্র আত্মহত্যার ঘটনা একটি পরিবারের অন্যান্য সদস্যদেরও সুখ-শান্তি কেড়ে নেয়। যখন মানুষের জ্ঞান, প্রজ্ঞা, উপলব্ধি ও অনুধাবন শক্তি লোপ পায়, নিজকে অসহায়-ভরসাহীন মনে হয়, তখনই সে আত্মহত্যা করে বসে। জীবনের প্রতি হতাশা ও সংকটের সময় যাতে কারো মনে আত্মহত্যার পরিকল্পনা না আসে সে জন্য আল্লাহ তায়ালা ইরশাদ করেন, ‘নিশ্চয় কষ্টের সাথে স্বস্তি রয়েছে।’ সূরা শারহ, আয়াত ৫। যত বিপদ আসুক মুমিন কখোনো ভেঙ্গে পড়বে না। ইমানদার হবে ইস্পাত কঠিন ও পাহাড় সম অটল অবিচল। আল্লাহ তায়ালা ধৈর্য্যধারণ করাকে সাহসিকতার কাজ হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, ‘অবশ্যই যে সবর করে ও ক্ষমা করে নিশ্চয় এটা সাহসিকতার কাজ।’ সূরা শূরা, আয়াত ৪৩। নিজেদেরকে হত্যা করতে নিষেধ করে আল্লাহ তায়ালা বলেছেন, ‘আর তোমরা নিজেরা নিজেদের হত্যা করো না।’ সূরা নিসা, আয়াত ২৯। ইসলামে আত্মহত্যা নাজায়েয এবং তার পরিণতি জাহান্নাম। হযরত আবু হোরায়রা (রাঃ) হতে বর্ণিত রসুল সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি নিজেকে পাহাড়ের ওপর থেকে নিক্ষেপ করে আত্মহত্যা করে, সে জাহান্নামের মধ্যে সর্বদা ঐভাবে নিজেকে নিক্ষেপ করতে থাকবে। যে ব্যক্তি বিষপান করে আত্মহত্যা করেছে সেও জাহান্নামের মধ্যে সর্বদা ঐভাবে নিজ হাতে বিষপান করতে থাকবে। যে কোন ধারালো অস্ত্র দ্বারা আত্মহত্যা করেছে তার কাছে জাহান্নামে সে ধারালো অস্ত্র থাকবে যার দ্বারা সে সর্বদা নিজের পেটকে ফুঁড়তে থাকবে।’ বোখারি, হা/৫৩৬৩। অন্য হাদিসে এসেছে, ‘যে ব্যক্তি ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে সে দোজখে অনুরূপভাবে নিজ হাতে ফাঁসির শাস্তি ভোগ করতে থাকবে।’ সুতরাং দুনিয়ার সাময়িক কষ্ট থেকে বাচাঁর জন্য আত্মহননের পথ বেছে নিয়ে চিরস্থায়ী জীবন আখেরাতকে ধ্বংস করা যাবে না।

শেয়ার করুন

Leave a Comment